চোরাই চাল ত্রাণ হিসেবে পেলেন ১০০ গরিব-অসহায়

সংবাদ সারাক্ষণ
সম্পাদনাঃ ০১ জুন ২০২০ - ০৭:৪৫:২২ পিএম

খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজি মূল্যের এক হাজার কেজি চোরাই ও কালোবাজারে বিক্রির উদ্দেশে অবৈধভাবে মজুদ করা চাল আদালতের নির্দেশে ত্রাণ হিসেবে বিতরণ করেছে কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলা প্রশাসন।

সোমবার (১ জুন) বাজিতপুর থানা চত্বরে ১০০ কর্মহীন গরিব-দুঃখী মানুষের মধ্যে ব্যতিক্রমী এ ত্রাণ বিতরণ করা হয়। এতে অংশ নেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বাজিতপুর সার্কেল) মো. আমিনুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) দীপ্তিময়ী জামান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আশিকুর রহমান চৌধুরী ও ওসি মো. খলিলুর রহমান পাটোয়ারী।

প্রশাসন সূত্র জানায়, উপজেলার সরারচরের ডিলার নূরুল ইসলাম খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৫০০ কেজি চাল বিক্রি না করে বাজারের বিসমিল্লাহ অটোরাইস মিলে অবৈধ মজুদ করেন। খবর পেয়ে ইউএনওর নেতৃত্বে প্রশাসন গত ৫ মে এ চাল জব্দ করে। পুলিশ পরে নূরুল ইসলামকে আটক করে।

এর আগে গত ১৩ এপ্রিল হালিমপুর ইউনিয়নের জনৈক মো. জুয়েল মিয়ার পোল্ট্রি ফার্ম থেকে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আরো ৫০০ কেজি চোরাই চাল প্রশাসন জব্দ করে। আলাদা দুটি ঘটনায় উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. মোশারফ হোসেন বাদী হয়ে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনে বাজিতপুর থানায় দুটি মামলা দায়ের করেন।

বাজিতপুর থানার ওসি মো. খলিলুর রহমান পাটোয়ারী কালের কণ্ঠকে জানান, ২৩ মে দুটি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও বাজিতপুর থানার দুই এসআই হুমায়ুন কবীর ও মাসুদ রানা কিশোরগঞ্জের বিচারিক হাকিম আদালতে জব্দ চোরাই ও মজুদ করা চাল কর্মহীন মানুষের মধ্যে বিতরণের অনুমতি চেয়ে আবেদন করেন। পরে ওইদিনই বিজ্ঞ বিচারক জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাদ্দাম হোসেন মামলার আলামত হিসাবে আড়াই শ গ্রাম করে চাল রেখে দিয়ে বাদবাকি ৯৯৯ কেজি ৫০০ গ্রাম চাল গরিব-দুঃখী মানুষের মধ্যে বিতরণের নির্দেশ দেন।

পরে সোমবার বাজিতপুর থানা চত্বরে পৌরসভা সদর ও উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের তালিকাভুক্ত ১০০ জন সহায়হীন নারী-পুরুষের মধ্যে প্রায় ১০ কেজি করে চাল বিতরণ করা হয়। এ ঘটনা স্থানীয় জনমনে আলোচনার জন্ম দিয়েছে। অনেকে বলছেন, বাজিতপুর উপজেলা ও পুলিশ প্রশাসন চোরাই ত্রাণের চাল ত্রাণ হিসাবে বিতরণ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

প্রসঙ্গত, পুলিশ একটি মামলার আসামি নূরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠালেও অপর মামলার আসামি মো. জুয়েল মিয়াকে এখন পর্যন্ত গ্রেপ্তার করতে পারেনি। পুলিশ জানায়, মো. জুয়েল মিয়া পলাতক রয়েছেন।

সর্বশেষ