ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম, কুমারখালী পৌরসভার মেয়রসহ অভিযুক্ত ৭ কাউন্সিলর

সংবাদ সারাক্ষণ
সম্পাদনাঃ ০৬ মে ২০২০ - ০৪:৪৬:০৬ এএম

এবার কুষ্টিয়ার কুমারখালী পৌরসভার মেয়রসহ ৭ কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে সরকারি ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি আদালতের দৃষ্টিগোচর হলে স্ব-প্রনোদিত হয়ে আদালত বিষয়টি আমলে গ্রহণ করেন। এছাড়া অভিযুক্ত পৌরসভার মেয়রসহ ৭ কাউন্সিলরের অনিয়ম সংক্রান্ত বিষয়ে তদন্তপূর্বক আগামী ২৩ জুলাইয়ের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ওসিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালতের বিচারক এক আদেশে এ নোটিশ জারি করেন।

আদালত সূত্র জানায়, সহায়তা হিসাবে সরাকরি ত্রাণ প্রতি প্যাকেটে ১০ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, তিন কেজি আলু ও একটি সাবান বিতরণে অনিয়মের অভিযোগের বিষয়টি স্থানীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে তা আদালতের দৃষ্টিগোচর হয় এবং পরে আদালত স্ব-প্রণোদিত হয়ে মামলা করেন।

জানা যায়, পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে বরাদ্দকৃত ১৩৫০ প্যাকেট ত্রাণ কুমারখালীর মেয়রের নিকট থেকে কাউন্সিলরগণ গ্রহণ করেন এবং পরে তা তালিকাভুক্তদের মধ্যে বিতরণ না করে দেওয়া হয় অন্যদের। এ ঘটনায় পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের জেলা বিশেষ শাখার গোপন অনুসন্ধানে উঠে আসে ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের এ চিত্র। এছাড়া ওই তালিকাভুক্ত দুস্থদের ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে মর্মে তাদের স্বাক্ষর ও টিপসহি দেখানো হয়েছে তা সঠিক নয়।

মামলা দায়েরের আগে পুলিশ সুপার কার্যালয়ের বিশেষ শাখার রিপোর্টের ভিত্তিতে জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আব্দুর রহমান সরকারি ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম সংক্রান্ত বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কুমারখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে চিঠি দেন। এসব বিষয় আদালতের দৃষ্টিগোচর হলে আদালত এমন পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

পৌরসভার মেয়র ছামসুজ্জামান অরুণ জানান, ত্রাণ বিরতণে কোনো অনিয়ম করা হয়নি। তবে বিষয়টি যেহেতু আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে তাই এটি আদালতেই নিষ্পত্তি হবে।

কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মজিবুর রহমান জানান, আদালতের আদেশ এখনও হাতে পেলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সর্বশেষ